ব্রহ্মান্ড! এক সূর্য, কত গ্রহ!

অমোঘ নিয়তিতে গ্রহের প্রদক্ষিণ সূর্যের চারিধারে।
এখানেই গ্রহের বেঁচে থাকা যুগান্তরে।

বেঁচে থাকার স্বপ্ন-স্বাধীনতার তরে জন্মে
এমন সূর্য জীবের জগতে ক্ষণে ক্ষণে।
তাঁরা জন্মে অন্যের জন্য মৃত্যু মুঠোয় করে,
জানে তাঁরা তাঁদের দেহের পরিণতি,
নির্যাতন, নিপীড়ন, বয়ে যাবে রক্তগঙ্গা।
তবুও যে তাঁরা বীর, তাঁরা মৃত্যুঞ্জয়ী।
মুত্যুকে আলিঙ্গন করতে জানে সাহসীকতায়
আশার প্রভা মুখে হাসি ফোঁটায়,
স্বপ্ন দেখায়, হৃদয় রাঙায়,
এক সূর্য হারিয়ে যাবার বার্তায়।

বীজ বুনে নতুন প্রজন্মের
একদিন একসময় কেটে যাবে তিমিরে
ফুটবে আলো, জাগবে জীবনে
শান্তির পায়রা উড়বে উড়বে নীল শূন্যে।
মুক্তি হবেই হবে, স্বাধীনতা আসবে, আসবে  সুশাসন।
নিশ্চিহ্ন হবে অত্যাচারী, রক্ত চুষা জানোয়ার।
এখানেই ইতিহাসের পুনরাবৃত্তির আধার।
তাঁরা অমর, বেঁচে থাকবে চিরকাল।
বারে বারে আসবে জন্ম জন্মান্তরে
আলো জ্বালাতে যুগান্তরে
তাঁরাই উড়িয়ে যায় মুক্তির নিশান
আগামীর অগ্রসর ও প্রগতিশীল ভাবণায়।
Previous Post Next Post